1. masudsikder2007@gmail.com : Crimejanapad.com : Crimejanapad.com
সরকারি ভবন দখল করে কিন্ডারগার্টেন করলেন বাকেরগঞ্জ পৌর মেয়র লোকমান ডাকুয়া - Crimejanapad.com
শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৯:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম..
যুবলীগের ৪৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বরিশাল জেলা যুবলীগের শ্রদ্ধা নিবেদন সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার ১১ বছরের কারাদণ্ড বরিশাল শহরে কবর খুঁড়ে মৃত মানুষের টিপসই চুরি বাকেরগঞ্জ পৌর মেয়র লোকমান ডাকুয়ার দুর্নীতির ফিরিস্তি পীরগঞ্জে হামলার মূল পরিকল্পনাকারী সৈকত ছাত্রশিবির থেকে ছাত্রলীগে যোগ দেয় সরকারি ভবন দখল করে কিন্ডারগার্টেন করলেন বাকেরগঞ্জ পৌর মেয়র লোকমান ডাকুয়া বাকেরগঞ্জ পৌর মেয়র লোকমান ডাকুয়ার প্রধান সেনাপতি বাবলু ধর্ষণ মামলায় আটক কলসকাঠী ইউনিয়নের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মাসুদ সিকদার বাকেরগঞ্জ-৬ আসনের এমপি পদপ্রার্থী মুতিউর রহমান বাদশা’র পক্ষে শারদীয় শুভেচ্ছা বাকেরগঞ্জ পৌর মেয়র লোকমান ডাকুয়ার প্রতি যুবলীগ নেতার খোলা চিঠি

সরকারি ভবন দখল করে কিন্ডারগার্টেন করলেন বাকেরগঞ্জ পৌর মেয়র লোকমান ডাকুয়া

  • আপডেটের সময় : শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২১
  • ৩০৫ সময় দর্শন

ক্রাইম জনপদ ডেস্কঃ

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলায় স্বাস্থ্য বিভাগের তিন তলাবিশিষ্ট একটি ভবন চার বছর ধরে দখল করে কিন্ডারগার্টেন গড়েছেন মেয়র লোকমান ডাকুয়ার ছত্রছায়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের স্থানীয় এক নেতা।

সরকারি ভবনে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা বাকেরগঞ্জ পৌর মেয়র—এমনটাই দেখা গেছে বিশাল আকৃতির সাইনবোর্ডে। অংকুর কিন্ডারগার্টেনের পরিচালক হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অমল চন্দ্র শিবু।

একই ভবন দখল করে কার্যালয় করেছেন স্যানিটারি ইন্সপেক্টর। স্বাস্থ্য বিভাগের স্টাফও আছেন এর একাংশ দখল করে। ভবনের সামনে পাথরের স্তূপ করে রেখেছেন যুবলীগের নেতা ও স্থানীয় এক ঠিকাদার। বছরের পর বছর এভাবে সরকারি একটি ভবন বেদখল থাকলেও স্বাস্থ্য বিভাগ কিছুই জানে না। এ নিয়ে বাকেরগঞ্জ পৌর এলাকায় অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

সরকারি ভবনে কীভাবে আওয়ামী লীগের নেতারা কিন্ডারগার্টেন স্থাপন করলেন জানতে চাইলে বাকেরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শংকর প্রসাদ অধিকারী সাংবাদিকদের বলেন, ভবনটি এবং সেখানকার জমি স্বাস্থ্য বিভাগের। কিন্তু কীভাবে সেখানে কিন্ডারগার্টেন হয়েছে তা তিনি জানেন না। বিষয়টি খোঁজ খবর নিয়ে জানতে হবে।

জানা গেছে, বাকেরগঞ্জ পৌর শহরের ৩ নম্বর ওয়ার্ড-সংলগ্ন সদর রোডে কয়েক বছর আগে স্বাস্থ্য বিভাগ ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বসবাসের জন্য তিনতলা একটি ভবন নির্মাণ করে। কিন্তু ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কাজে না আসায় ধীরে ধীরে সেটি বিভিন্ন মহল দখল করে ফেলে। সর্বশেষ চার বছর আগে ভবনটির দ্বিতীয় তলা দখল করে কিন্ডারগার্টেন চালু করেন স্থানীয় উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অমল চন্দ্র শিবু।

মূলত সাইনবোর্ডে মেয়রের নাম ব্যবহার করে স্বাস্থ্য বিভাগের ওই জমি ও ভবন দখল করাই উদ্দেশ্য বলে স্থানীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে।

বাকেরগঞ্জের স্যানিটারি ইন্সপেক্টর আ. হাকিম বলেন, জমি ও ভবন স্বাস্থ্য বিভাগের। অনেক বছর আগে বরিশাল শের-ই বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়ের একটি প্রকল্পের অধীনে জমিতে তিনতলা ভবন করা হয়।

শেবাচিমের শিক্ষার্থীরা বাকেরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ইন্টার্ন চিকিৎসকের দায়িত্ব পালন করবেন এবং নির্মিত ভবনটি ইন্টার্নদের আবাসিক হিসেবে ব্যবহৃত হবে, এমনটাই কথা ছিল। পরে ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা বাকেরগঞ্জে না আসায় ভবনটি অব্যবহৃত থেকে যায়।

পরে আওয়ামী লীগ নেতা শিবু ভবনটি দখল করে কিন্ডারগার্টেন করেছেন। কিন্ডারগার্টেনের প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে রয়েছেন মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া বলে তিনি জানান।

জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং অংকুর কিন্ডারগার্টেন এর পরিচালক অমল চন্দ্র শিবু আজকের পত্রিকাকে বলেন, ভবনটি বরিশাল মেডিকেল কলেজের আওতায় একটি প্রকল্পের জন্য করা হয়েছিল। কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা এসে মাঝে মাঝে থাকবেন এমনটাই কথা ছিল। যেটি এখন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অধীনে আছে।

ভবনটি অবৈধভাবে দখলে ছিল একটি পক্ষের। এখনো স্যানিটারি ইন্সপেক্টর, স্বাস্থ্য বিভাগের স্টাফরাও অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে ভবনের একাংশ। তিনি চার-পাঁচ বছর আগে ভবনের দ্বিতীয় তলায় কিন্ডারগার্টেন করে শিক্ষার ব্যবস্থা করেছেন। এই কিন্ডারগার্টেনের প্রতিষ্ঠাতা পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া। মেয়র বিষয়টি অবগত আছেন বলে জানান আওয়ামী লীগ নেতা শিবু।

পৌর শহরের ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও পৌর যুবলীগের সভাপতি ঠিকাদার খন্দকার জিয়াউর রহমান রিপন বলেন, ভবনটি মূলত ইন্টার্নি ডাক্তারদের হোস্টেল। তাঁরা থাকেন না। কিন্ডারগার্টেন, সেক্রেটারিজ ইন্সপেক্টরসহ স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন সেখানে থাকেন।

বাকেরগঞ্জ পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া সাংবাদিকদের বলেন, `স্বাস্থ্য বিভাগ একটি প্রকল্পের জন্য ভবনটি করেছিল। পরে তা বাতিল হয়। এখন সেখানে স্যানিটারি ইন্সপেক্টরের অফিস এবং নামেমাত্র একটি কিন্ডারগার্টেন রয়েছে। কিন্ডারগার্টেনের সঙ্গে আমার নামও রাখা হয়েছে বলে জেনেছি।’

এ ব্যপারে বরিশাল জেলা সিভিল সার্জন ডা. মনোয়ার হোসেনের জানা নেই। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাও তাঁকে কিছু জানাননি। তিনিও বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখবেন। সূত্রঃ দৈনিক সুন্দরবন / আজকের পত্রিকা

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2020 crimejanapad.com
Desing & Developed BYServerNeed.com